আন্তর্জাতিক

অভাবের তাড়নায় বাধ্য হয়ে সন্তান বিক্রি করছে আফগানরা

আফাগানের পিতা মাতা তাদের খাবারের অভাবে বাধ্য হয়ে ৭-১০ বছরের মেয়েদের নগদ টাকার বিনিময়ে বিয়ে দিয়ে দিচ্ছে। তবে বিক্রি হয়ে যাওয়া শিশুরা প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগ পর্যন্ত বাবা মা এর সাথেই থাকবে পরে সেই ছেলের সাথে বিয়ে দেওয়া হবে।

এই সম্পর্কে বলতে গিয়ে এক কন্যা শিশুর বাবা বলেন, কয়েকদিন ধরেই বাড়িতে খাওয়ার মতো কিছুই নেই। অবশেষে টাকার বিনিময়ে ১ হাজার ডলারের বিনিময়ে কন্যাকে বিক্রি করে দিয়েছেন। আর যতক্ষন তিনি টাকা ফেরত না দিবেন তার কন্যাকে পাবেন না। আর তিনি তার কন্যাকে পুনরায় ফিরে পাওয়া নিয়ে এখনো অনিশ্চিত।

হামিদ আব্দুল্লাহ নামের আরেকজন কন্যার পিতা জানান, তিনি তার মেয়েকে বিক্রি করে দিয়েছে ওষুধের টাকা জোগাড় করার জন্য। তার আরেক কন্যা আছে সেই শিশুকেও বিক্রি করার চিন্তা করছেন তিনি। তিনি বলেন পরিবারের অন্যদের জীবন রক্ষার্থে আর কোনো পথ নেই তার কাছে।

আবার কিছু কিছু পরিবার তাদের ছেলে শিশুকেও বিক্রি করে দিচ্ছে। এসকল ছেলেদের কিনে নিচ্ছে যাদের সন্তান নেই তারা।

দেশটির এনজিও কর্মীরা জানাচ্ছেন অর্থনৈতিক ভাবে দেশটি ধীরে ধীরে সংকটের মুখে পড়ছে। এই সংকটের মুখে পড়ে সন্তান বিক্রি করে দেওয়াটা সত্যিই খুব কষ্টজনক। বিদেশি অনুদান ও সাহায্য বন্ধ থাকায় এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button