শিক্ষা

সেপ্টেম্বরেই খুলে দেওয়া হবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে চিন্তা ভাবনায় আছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়  


২০২০ সালের মার্চ থেকে ২০২১ সালের আগস্ট প্রায় ১৭ মাস যাবত সকল প্রকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার পর অভিভাবক,শিক্ষার্থী ও সাধারণ জনগণের একটি প্রশ্ন কবে খোলা হবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। গতকাল বুধবার বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি  বলেছেন  করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলেই সেপ্টেম্বরে স্কুল ও নভেম্বর ডিসেম্বর মাসে এসএসসি ও এইচএসসি  পরীক্ষা নেওয়া হবে।
এই বছরের শুরুতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার কথা চিন্তা করেছিল।কিন্তু সরকার তখন চিন্তা করল যদি কোনো শিক্ষার্থী আক্রান্ত হয়ে যায় তবে এর দায়ভার পড়বে সরকারের উপর।এজন্য পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসলেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পক্ষে তারা।   
প্রাথমিক পর্যায়ে স্কুল ও পরে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার চিন্তাভাবনা করছে সরকার।মূলত সরকারের উচ্চপদস্থদের চিন্তা  ধাপে ধাপে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হবে। তবে কবে খোলা হবে তা নিয়ে কোনো নিশ্চিত তথ্য এখন জানা যায়নি।গত ৭ ই আগস্ট দেশের বিভিন্ন স্থানে টিকা দেওয়া হয়েছে।বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের টিকা দিতে পারলে সেপ্টেম্বরের শেষ নাগাদ বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়া হবে। সেটি নির্ভর করছে  টিকা দেওয়া ও গ্রহণ করার উপরে।যত তাড়াতাড়ি জনগণের টিকা নিশ্চিত হবে তত তাড়াতাড়ি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হবে।
জানা গেছে গত বছরের শেষ দিকে করোনা পরিস্থিতির কথা চিন্তা করে এই বছরের শেষদিকে স্কুল খুলার চিন্তাভাবনা করছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।তবে গেছে বছর টিকা নেওয়ার ব্যবস্থা না থাকলেও এই বছর গণহারে টিকা নিচ্ছে মানুষ।তাই এই বছর সংক্রমণের হার বেড়ে গেলেও টিকা নেওয়ার হার ও অনেক বেড়েছে।এই কারণে শিক্ষা মন্ত্রণালয় স্কুল কলেজ খুলে দিবে।টিকা পর্যাপ্ত পরিমানে গ্রহণ করলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে আর কোনো বাধা থাকবে না। তখন আবার আগের মতই শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হবে বলে আশা করা যায়।                            

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button